IQNA

21:02 - September 06, 2019
সংবাদ: 2609204
ঢাকা সফররত ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোহাম্মদ জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, ‘অর্থ খরচ করে অস্ত্র কিনে কখনো শান্তি ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা যায় না। একমাত্র বন্ধুত্ব, সংলাপ এবং সহযোগিতার মাধ্যমেই শান্তি ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা যায়। শান্তির জন্য অস্ত্রের পেছনে অর্থ খরচ কমিয়ে বন্ধুত্ব ও সংলাপের পথে বিনিয়োগ করতে হবে।

বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: বুধবার রাজধানীতে গণমাধ্যমের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলাপকালে এমন মন্তব্য করেন ইরানি পরাষ্ট্রমন্ত্রী।

ইরানী পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এমন স্পষ্ট উক্তিকে স্বাগত জানিয়েছেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক। তিনি রেডিও তেহরানকে বলেছেন, ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুসলিম দেশগুলির জনগণের মনের কথার প্রতিধ্বনি করেছেন।মার্কিন সাম্রজ্যবাদী গোষ্ঠী মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধ পরিস্থিতি জিয়ে রেখে ফায়দা তুলতে চায়। মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম দেশগুলোর মধ্যে সংঘাত নিরসনে ওআইসি’র ভূমিকারও সমালোচনা করেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান ইসলামী রাজনৈতিক দল, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মহাসচিব হাফেজ মাওলানা ইউনুস আহমেদ ‌ বলেছেন, এটা সত্যি যে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলি অস্ত্রের পেছনে অর্থ ব্যয় না করে তাদের সম্পদ জনগণের কল্যাণে ব্যয় করলে ওসব দেশ ভূস্বর্গে পরিণত হতে পারতো, উন্নত দেশগুলির চেয়েও দ্রুত উন্নতি লাভ করতে পারতো ।

এদিকে ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাওয়াদ জারিফ ঢাকা-তেহরানের মধ্যে দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক, কূটনৈতিক এবং বাণিজ্যিক সম্পর্কের প্রসঙ্গে উল্লেখ করে বলেছেন, বাংলাদেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বা যে কোন দেশের সাথে সম্পর্ক রাখবে সেটা তার অধিকার; তবে ইরানের সাথে সম্পর্কের ক্ষেত্র কেই বাধা দিলে সেটা ভিন্ন কথা।

গতকাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকে তিনি বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্যের শান্তির জন্য ইরান আগামীকালই সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি আছে। কেন না অস্ত্র দিয়ে আঞ্চলিক বা কোনো একক দেশের নিরাপত্তা আর শান্তি নিশ্চিত করা যায় না। আর প্রতিবেশি দেশগুলোর মধ্যে অস্ত্র বৈষম্য (আর্মস ইমব্যালান্স) থাকলে শান্তি আসে না। সামরিক শক্তি দিয়ে কখনও বিজয়ী হওয়া যায় না। বিজয়ী হতে হলে রাজনৈতিকভাবে এগুতে হয় এবং সংলাপ ও বন্ধুত্বেই তা সম্ভব।

রোহিঙ্গা সংকট প্রসঙ্গে জাওয়াদ জারিফ বলেন, ‘মিয়ানমার থেকে বাস্তুচ্যূত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ মানবিকতার চমৎকার উদাহরণ সৃষ্টি করেছে। রোহিঙ্গাদের যথাযথ সম্মান এবং পূর্ণ নাগরিক অধিকার নিয়ে নিজ জন্মভূমিতে ফিরে যাওয়াই এই সংকটের একমাত্র সমাধান। এই সংকট সমাধানে বিশ্বকে দৃশ্যমান কাজ করতে হবে। মিয়ানমারের প্রতি চাপ সৃষ্টি করতে হবে যাতে তারা রোহিঙ্গাদের অধিকার দিতে বাধ্য হয়।’

ভারত মহাসাগর অঞ্চলকে কেন্দ্র করে উপকূলীয় ২১ রাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক সংগঠন আইওআরএ (ইন্ডিয়ান ওসেন রিম অ্যাসোশিয়েশন)-এর মন্ত্রী পর্যায়ের তৃতীয় সম্মেলন সম্মেলনে অংশ নিতে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাওয়াদ জারিফ বাংলাদেশ সফর করছেন। পার্সটুডে

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: